যে তিনটি কারনে আপনি কখনো সম্পূর্ণ সফল হতে পারবেন না

আপনি কী আমার মতো? আশা করি আপনি অনেক অর্থ উপার্জন করছেন?

অবশ্য তা নয় যে আমি অসুখী। কারন আমি না, এবং আশা করি আপনিও না। দশ জনকে নিয়ে আমার ব্যবসায় মোটামুটি ভালোই চলছে। আমরা কাস্টমার রিলেশনশিপ ম্যানেজমেন্ট (সিআরএম) সফ্টওয়্যার এবং সার্ভিসেস বিক্রি করি। ক্লায়েন্টরা তাদের সিস্টেমকে পুরোপুরি উপভোগ বা কাজে লাগানোর ব্যবস্থা করে দেয়ার জন্য আমাদেরকে ভাড়া করে নিয়ে যায়। আমরা উপার্জন করতে পারি, কিন্তু আমি আরও বেশি চাই। আমার উচ্চাকাংখা রয়েছে। আমাকে টিউশন ফি, বাসা ভাড়া এবং খাবারের বিল পরিশোধ করতে হয়। আমি অবসরগ্রহন করার পরবর্তী সময়ের জন্য কিছু সঞ্চয় করতে চাই। এই সব আকাংখা আপনারও আছে।

তো, কেন আমি আরও অর্থ উপার্জন করতে পারছিনা? আমার পাশের সবচেয়ে সফল ক্লায়েন্টের দিকে লক্ষ্য করে দেখলাম তিনটি কারনে আমি পিছিয়ে আছি।

আমি ভালো ম্যানেজার নই:

কখনো কি বিস্মিত হয়েছেন যে সিইও রা কিভাবে মিলিয়নিয়ার হয়? এর সবচেয়ে বড় কারন হলো তারা শত সহস্র মানুষকে নির্দিষ্ট গন্তব্যের দিকে এগিয়ে যাওয়ার জন্য অনুপ্রেরণা দিতে পারে ও তাদের পরিচালনা করার দক্ষতা রয়েছ। আমার অনেক মক্কেল আছে যারা আমার কোম্পানীর চেয়ে ২০গুন বড় এবং খুব সহজে পরিচালনা করতে পারে। তারা কার্যকরী সংগঠনের কাঠামো এবং ব্যবস্তাপনার স্তর তৈরি করেছে। কর্মচারীরা তাদের অনেক পছন্দ করে এবং কঠোর পরিশ্রম করে। তারা অনুপ্রেরণা ও নেতৃত্ব দেয়, শুনে এবং সহানুভুতি প্রকাশ করে। তারা শক্ত মনের হতে পারে এবং স্বচ্ছ মনের হতে পারে।

আমি না। আমার তাদের মতো সংগঠন চালানোর মতো ক্ষমতা নেই। আমি ১০ জনকেই নিয়ন্ত্রন করতে ভয় পাই। আমি জানি তার যতোটা সৃজনশীল হওয়ার কথা ততোটুকু দেখাতে পারছে না। আমি করতে পছন্দ করি, পরিচালনা করতে নয়। আমার অল্প ধৈর্য্য। আমি সবাইকে পছন্দ করি কিন্তু তারা কী চায় তা আমি জানতে চাই না। এটা আসলে নেতৃত্ব নয়। আপনিও কী এরকম করেন?

যথেষ্ঠ ক্ষুধিত নই:

অন্যান্য সফল ব্যবসায়িকদের অর্থনৈতিক সম্পদের চেয়ে আমার সম্পদের পরিমান খুবই কম। ব্যাংকে মিলিয়ন টাকা ডিপোজিট করা, একাধিক বাড়ির মালিক হওয়া, ব্যয়বহুল গাড়ী অথবা ব্যক্তিগত বিমানের মালিক হওয়ার উচ্চাভিলাসী ইচ্ছা জাগে না।

সংগত কারনে, আমি বড় ধরনের ঝুকি নিতে কম ইচ্ছুক। তার মানে আমি ছোট পুরস্কার অর্জনে আগ্রহী। আমি কোন কারনে ক্ষমা প্রার্থনা করি না। আমার মনোরম জীবন আছে এবং সুন্দর ছোট একটি ব্যবসায়। কিন্তু যে সব মক্কেলদের কথা বলেছি যারা মিলিয়ন টাকা উপার্জন করছে, তাদের কথা কে বলবে? তারা ঝুকি নিয়েছে। তারা উৎসর্গ করেছে। তারা অনেক কিছুকে টপকে গিয়েছে।

পরিমিত মনে করে থেমে যাই:

আমি আমার সর্বোচ্চ সামর্থ্য প্রয়োগ করতে চেষ্টা করি। কিন্তু কখনও কখনও আমার সবোর্চ্চ প্রয়োগটা আসলে সর্বোচ্চ হয় না। তার চেয়েও বেশি প্রয়োগ করা যেতো, সর্বোচ্চ সেবাটা দেয়ার জন্য প্রশিক্ষন নেয়া যেতো। কিছু ব্যক্তি সবসময় সবচেয়ে উত্তম হওয়ার সংগ্রাম করে। কারন, উন্নয়ন সবসময়ই কিছু না কিছু নিয়ে আসে। আমি? আমি মাঝে মাঝে থেমে যাই। প্রায়ই আমি থেমে যাই। এবং পরেই পরিবারে ফিরে যাই, ইএসপিএন দেখতে বসে যাই।

এগুলো আসলে অজুহাত বা কৈফিয়ত নয়, এটা হলো জীবনাচরন বা লাইফস্টাইল। যারা পৃথিবীকে পরিবর্তনের দায়িত্ব নিয়েছে এবং অর্থ উপার্জন করছে তাদের থেকে এই মনোভাবই আমাকে পৃথক করে রেখেছে। আপনিও কি এই অল্পতেই আটকে যান?

এই নিয়মগুলো সবসময়ই সত্যি হয় না। মাঝে মাঝে কেউ কেউ সহসাই কোম্পানির শীর্ষ পর্যায়ে উঠে যায়। কিন্তু যারা অর্থনৈতিক ভাবে উন্নতি করেছে, তারা সফল হয়ে ভালো এবং যুক্তিযুক্ত কারনেই। এবং ন্যূনতম এই তিনটি কারনে।

 

Spread the love

Comments

comments

Leave a Reply